রাণীশংকৈলে জনতার মুখোমুখি ১০ মেয়র প্রার্থী !

0
219

আনোয়ার হোসেন আকাশ রাণীশংকৈল থেকে…
কাধে কাধ মিলিয়ে হাতে হাত মিলিয়ে এক কাতারে ১০ মেয়র দাড়িয়ে এক বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করলো ঠাকুরগাঁও রাণীশংকৈল পৌরসভা নির্বাচনে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের মনোনীত ও স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থীরা। এছাড়াও যে প্রার্থীই নির্বাচিত হোক সম্মিলিতভাবে পৌরসভার উন্নয়নে কাজ করার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছে তারা।

পৌরশহরের মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের একটি স্বেচ্ছাসেবী সমাজকল্যাণ মূলক সংগঠন পরিবর্তনের আয়োজনে এক মঞ্চে সকল মেয়র প্রার্থীদের উপস্হিত করা হয়।

প্রধান শিক্ষক গোপেন নাথ বর্ম্মনের সভাপতিত্বে ও সংগঠনটির সম্পাদক শাহিন আলমের সঞ্চালনায় রোববার (৩১জানুয়ারি) দুপুর আড়াইটা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৫ টা পর্যন্ত বিরতীহনভাবে “মেয়র প্রার্থীদের নিয়ে জনতার মুখোমুখি অনুষ্ঠানে ”এবারের পৌরসভা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করা সকল মেয়র প্রার্থীরা এতে উপস্থিত থেকে তাদের আগামীর কর্মপরিকল্পনা নিয়ে সবার মাঝে আলোচনা করেন।
এতে পৌরশহরের শিক্ষক, মুক্তিযোদ্ধা, ডাক্তার, রাজনীতিবিদ, সাংবাদিক সহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার হাজারখানেকের অধিক মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

এ অনুষ্ঠান শুরুর পূর্বে সংগঠনটির সভাপতি রাশেদুজ্জামান রাশেদ স্বাগত বক্তব্য রাখেন, এছাড়াও আমন্ত্রিত অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন ঠাকুরগাঁও-৩ আসনের সাবেক সাংসদ অধ্যাপক ইয়াসিন আলী সংগঠনের উপদেষ্টা এম এস রবিউল ইসলাম সবুজ চিকিৎসক আব্দুল্লাহ আল মুনিম।

এ সময় আ’লীগ মনোনীত প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক ,বিএনপি মনোনীত মাহমুদুন নবী পান্না বিশ্বাস জাতীয় পার্টি মনোনীত আলমগীর হোসেন আলম স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান মেয়র উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আলমগীর সরকার উপজেলা যুবলীগের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল খালেক পৌর আ’লীগের বহিস্কৃত সম্পাদক রফিউল ইসলাম উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি নওরোজ কাউসার কানন বহিস্কৃত আ’লীগ নেতা সাধন বসাক আফম রুকুনুল ইসলাম ডলার ও নির্দলীয় মেয়র প্রার্থী মোকাররম হোসাইন।
এ অনুষ্ঠানে মেয়রদের বক্তব্য বিভিন্নজনের ভিন্ন ভিন্ন কর্মপরিকল্পনা থাকলেও তারা একটি স্থানে একমত পোষণ করে বলেন, এ পৌরসভাকে মাদক নির্মূল ইভটিজিং মুক্ত পরিচ্ছন্ন আধুনিক মডেল নগরী গড়ে তোলার প্রত্যয় ব্যাক্ত করেন সকলে।
এছাড়াও হোল্ডিং কর কমানো প্রতিটি ওয়ার্ডে সেবার মান নিশ্চিত করাসহ রাস্তাঘাট নির্মাণ শিশু ও বিনোদন পার্ক নির্মাণ শিক্ষা ব্যবস্থায় আধুনিকায়ন চিকিৎসার মান উন্নত করণ সহ বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কাজ করার অঙ্গিকার করেন সকল মেয়র প্রার্থী ।

উল্লেখ্য এ পৌরসভায় মোট ১২ জন মেয়র প্রার্থী, এদের মধ্যে আ’লীগের বিদ্রোহীসহ ৮ বিএনপির বিদ্রোহীসহ-২ জাতীয় পার্টি-১ ও স্বতন্ত্র প্রার্থী-১জন।
ভোট অনুষ্ঠিত হবে ১৪ ফেব্রুয়ারী। মোট ভোটার সংখ্যা ১৪ হাজার ৬শত ২৪ জন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে