বিবাহিতদের নিয়ে কমিটি ঘোষনা করার প্রতিবাদে বালিয়াডাঙ্গীতে সাংবাদিক সম্মেলন

0
193

ঠাকুরগাও জেলাধীন বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক কমিটি অগঠনতান্ত্রীক, অছাত্র ও বিবাহিতদের নিয়ে কমিটি ঘোষনা করার প্রতিবাদে ও নব ঘোষিত আহ্বায়ক কমিটি হতে বিবাহিত এবং অছাত্রদের বাদ দিয়ে কমিটি ঘোষণার দাবিতে সাংবাদিক সম্মেলন ও কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।
আজ ০৮ অক্টোবর বৃহস্পতিবার দুপুরে বালিয়াডাঙ্গী প্রেসক্লাব হলরুমে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা ছাত্রদলের নব ঘোষিত কমিটির (একাংশ) আয়োজনে এ সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন নব ঘোষিত আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সচিব আবু সায়েদ।
এ সময় জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদের, বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা ছাত্র দলের সাবেক সভাপতি আবদুর রাজ্জাক, বড়বাড়ী ইউনিয়ন ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক তরিকুল ইসলাম, নব ঘোষিত ছাত্রদলের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক ইলিয়াস আলী, যুগ্ম আহ্বায়ক সাব্বির আহম্মেদ জয়, সামসুজ্জোহা, নুরে আলম নুরানী, সাদ্দাম, সদস্য সচিব আবু সায়েদ, সদস্য ফরিদুল, আরিফ, রিপন, ফরহাদ, সিফাত, উমের আলী, আসিফ ও মোক্তারুল প্রমুখ।
সদস্য সচিব আবু সায়েদ তাঁর বক্তব্যে বলেন,
বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) ১৯৭৮ সালের ১ সেপ্টেম্বরে গঠিত হয়। প্রেসিডেন্ট শহিদ জিয়াউর রহমান পরবর্তিতে দলকে আরো শক্তি শালী করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলকে সহযোগি সংগঠন হিসেবে গঠন করেন। এরই ধারাবাহিকতায় ছাত্রদল যুগে যুগে দলটিতে উৎপাদন মুখী কাজ করে আসছে।

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল বালিয়াডাঙ্গীতে সব সময় দলে অগ্রণী ভুমিকা পালন করে আসছে। গত তিন বছর বিভিন্ন রকম মামলা-হামলা ও হুমকি-ধামকির মধ্যদিয়ে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায় ছাত্রদলের সুপার নাইন কমিটি দিয়ে ছাত্রদল চলেছে। পরবর্তিতে কেন্দ্র ঘোষিত মোতাবেক অবিবাহিত ও অধ্যায়নরত ছাত্রদের দিয়ে উপজেলা ছাত্রদলের কমিটি গঠনের নির্দেশ আসে। সে আলোকে গত মাসের ১৯ সেপ্টেম্বর জেলা ছাত্রদল বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা ছাত্রদলের সুপার নাইন কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেন। সে সময় জেলা ছাত্রদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করেন যে, আগামী ছয় দিনের মধ্যে অবিবাহিত, চলমান (অধ্যায়নরত) ছাত্র দিয়ে ছাত্র দলের কমিটি হবে মর্মে জেলা ছাত্রদল বরাবরে পদ প্রার্থীদের পদ উল্লেখপূর্বক জীবন বৃত্তান্ত (সিভি) জমা করার নির্দেশ দেন। তার পরেই ৪জন আহ্বায়ক পদেসহ মোট ১৩ জন পদ প্রার্থী সিভি জমা করেন।

তিনি তাঁর বক্তব্যে আরো বলেন,
জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের গঠনতন্ত্রের ৬.১(খ) ধারায় উল্লেখ আছে যে, “বাংলাদেশের নাগরিক এবং অধ্যায়নরত ছাত্রছাত্রীবৃন্দই কেবলমাত্র জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের সদস্য/সদস্যা হওয়ার যোগ্য বলে বিবেচিত হবে।”
বর্তমানে ছাত্রদলের আহ্বায়ক কমিটিতে যাকে আহ্বায়ক করা হয়েছে সে অধ্যায়নরত ছাত্র না এবং সে ছাত্রদলের রাজনীতির সাথে কখনো জডিত ছিল না। সেই সংগে ঘোষিত আহ্বায়ক নাঈমের দেওয়া সিভি হতে জানা গেছে সে ২০০৮ সালে এসএসসি পাশ করে। ২০২০ সালে উচ্চ মাধ্যমিকে (এইচএসসিতে) ভর্তি দেখানো হয়েছে। যেটি শুধুমাত্র ছাত্রদলের পদ পাওয়ার জন্যই করা হয়েছে বলে জানা গেছে।
তিনি আরো বলেন,
যেসব কারণে বিবাহিত ও অছাত্রদের আহ্বায়ক কমিটি হতে বাদ দেওয়া দরকার ঃ
ক্স ছাত্রদলের আহ্বায়ক কমিটিতে বিবাহিত এবং অছাত্রদের অগঠনতান্ত্রীকভাবে স্থান দেওয়া হয়েছে।
ক্স শিক্ষাগত যোগ্যতা যাচাই না করে কমিটি গঠন করা হয়েছে এবং গঠনতন্ত্রের বাইরে কমিটি করা হয়েছে।
ক্স মাদকসেবী ও নারী কেলেংকারির সাথে জডিতদের কমিটিতে রাখা হয়েছে।
ক্স ছাত্রলীগ কর্মীকে আহ্বায়ক কমিটিতে রাখা হয়েছে।
ক্স বিগত সুপার নাইন কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও চলমান ছাত্র সিভি জমা দেওয়া সত্ত্বেও মোহাম্মদ মিন্টুকে কমিটিতে রাখা হয়নি। অন্যদিকে সিভি না দিয়েও এবং তাদের ছাত্রত্ব আছে কিনা তা যাচাই না করেই কমিটিতে স্থান দেওয়া হয়েছে।
ক্স পদণ্ডব্যবসায়ীদের দ্বারা প্রভাবিত হয়ে কমিটি করা হয়েছে।
ক্স সিভিতে পদবী উল্লেখ করার পরেও নিয়মের বাইরে মনগড়া আহ্বায়ক কমিটি করা করা হয়েছে।
ক্স কমিটিতে বিদ্যমান অছাত্র ও বিবাহিতদের বাদ দিয়ে কমিটি গঠনের দাবি জানাচ্ছি। তা না করা হলে আমরা নিম্নোক্ত পরবর্তি কর্মসূচি পালন করবো –
(১) ঘোষিত বিতর্কিত কমিটির বিরুদ্ধে উপজেলায় ও জেলায় মানববন্ধন এবং প্রতিবাদসভা করা হবে।
(২) ঘোষিত আহ্বায়ক কমিটি বয়কট ঘোষণা করা হবে।
(৩) বিতর্কিত ২১ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটির মধ্য হতে অধিকাংশ সদস্যের পদত্যাগ কর্মসূচি পালন করা হবে।
ঠাকুরগাও জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদের বলেন, পরিশেষে বলা আবশ্যক যে, নিয়মের দোহাই দিয়ে কমিটি ভেঙ্গে দেওয়া হয়েছে সেটার প্রতিফলন আহ্বায়ক কমিটিতে ঘটেনি। আবারো অছাত্রকেই আহ্বায়ক করা হয়েছে এবং সে কখনো ছাত্রদল করতো না। অন্যদিকে কমিটিতে অছাত্র ও বিবাহিতদের স্থান দেওয়া হয়েছে। যা নেহাতই ছাত্র দলের নীতিমালা পরিপন্থি।
এ জন্যই আমরা এ কমিটি হতে অছাত্র ও বিবাহিতদের বাদ দিয়ে গঠনতন্ত্র নীতিমালা মোতাবেক কমিটি গঠনের দাবি জানাচ্ছি।
নব ঘোষিত ছাত্র দলের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক ইলিয়াস আলী বলেন, উপজেলা ও জেলা বিএনপিসহ বিভাগীয় ছাত্রদলকে অবগত করার পরও কোন প্রতিকার না পাওয়ায় আমরা আজ সাংবাদিক সম্মেলনসহ কর্মসূচি ঘোষণা করতে বাধ্য হয়েছি।
আমরা বিবাহিত ও অছাত্রদের বাদ দিয়ে আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণার দাবি জানাচ্ছি।
এ সময় সাংবাদিক সম্মেলনে উপজেলা ও জেলার বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিক ও সংবাদকর্মীগণ উপস্থিত ছিলেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে