পঞ্চগড় থেকে বাংলাবান্ধা হয়ে শিলিগুড়ি যাবে ট্রেন

0
122

রেলমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন বলেছেন, বিএনপি-জামায়াতের সময় রেল ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দেওয়া হয়েছিল। রেলের ১০ হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারীকে বিদায় করে দেওয়া হয়েছিল। এরপর কাউকে নিয়োগ দেওয়া হয়নি। আমরা ক্ষমতায় আসার পর রেলপথে ব্যাপক উন্নয়ন করেছি।

তিনি বলেন, পঞ্চগড় থেকে বাংলাবান্ধা হয়ে শিলিগুড়ি পর্যন্ত রেলপথ সম্প্রসারণের কাজ করছে সরকার। যাতে পঞ্চগড় থেকে বাংলাবান্ধা হয়ে শিলিগুড়ি যাওয়া যায়। কারণ বাংলাবান্ধা একমাত্র স্থলবন্দর, যে বন্দরের সঙ্গে ভারত, বাংলাদেশ, নেপাল ও ভুটানের যোগাযোগ রয়েছে। সেজন্য চিলাহাটি থেকে শিলিগুড়ি পর্যন্ত রেল যোগাযোগ চালু হয়েছে। রেলের এই উন্নতির ফলে বাংলাদেশের সঙ্গে বিশ্বের বাণিজ্যিক সম্পর্ক আরও সুদৃঢ় হবে।

সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) সকালে ঠাকুরগাঁও রোড রেলস্টেশনের উঁচু ও বর্ধিত প্ল্যাটফর্মের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

নূরুল ইসলাম সুজন বলেন, আগে চট্টগ্রাম পর্যন্ত রেল যোগাযোগ ছিল। কক্সবাজার পর্যন্ত রেল যোগাযোগ ছিল না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে রেল যোগাযোগকে কক্সবাজার পর্যন্ত সম্প্রসারণে নতুন রেলপথ বসানোর কাজ চলছে।

রেলমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চলের খুলনা পর্যন্ত রেল যোগাযোগ ছিল। মোংলা সমুদ্রবন্দর পর্যন্ত রেল যোগাযোগ ছিল না। ইতোমধ্যে মোংলা সমুদ্রবন্দর পর্যন্ত রেলপথ সম্প্রসারণের কাজ শুরু হয়েছে। আগামী বছরের জুনের মধ্যে প্রকল্পের কাজ সম্পন্ন হবে, আশা করছি।

বাংলাদেশ রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) মিহির কান্তি গুহর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. সেলিম রেজা, মহাপরিচালক ডিএন মজুমদার, ঠাকুরগাঁওয়ের জেলা প্রশাসক (ডিসি) ড. কেএম কামরুজ্জামান সেলিম ও পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর হোসেন প্রমুখ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে