ঠাকুরগাঁও রিপোর্টার্স ইউনিটি‘র সহযোগিতায় হরিপুরে পালিত পুত্র আটক

0
277

ঠাকুরগাঁও রিপোর্টার্স ইউনিটি‘র সহযোগিতায় পালিত পুত্র তোফাইলকে আজ বিকাল অনুমান সাড়ে ৩টার সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আত্মগোপনে থাকা অবস্থায় তাকে আটক করে হরিপুর থানা পুলিশ।
জানা যায়, জেলার হরিপুর উপজেলার বকুয়া ইউনিয়নের মৃত কেংকর আলীর স্ত্রী ফাতেমা বেগম (৭০) এক ছেলেকে নিয়ে বসবাস করতো নারগুন গ্রামে। এর মধ্যে ছেলে আব্দুস ছালাম (২৫) ঢাকায় কাজের সন্ধ্যানে গিয়ে মারা যায়। পরে প্রতিবেশী তোফায়েল হোসেন ওই বৃদ্ধ নারীকে ভুলিয়ে ভালিয়ে তার বাকি জীবন দেখভালের কথা বলে বসতভিটাসহ ৬ বিঘা জমি রেস্ট্রি করে নেয়। এ বিষয়ে হরিপুর থানায় একাধিকবার গিয়েও কোন বিচার পায়নি। পরে গত ১৫ ডিসেম্বর রাতে ওই ইউনিয়নের ঘাগড় তলা রাস্তায় পরে থাকা অসুস্থ্য অবস্থায় ফেলে দেয় তোফায়েলসহ কয়েকজন। পরে পথচারিরা ভোড় রাতে তাকে দেখতে পেয়ে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে হরিপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। দীর্ঘ এক মাস ধরে হাসপাতালে ভর্তি থাকলে কেউ তার খবর নেয় নি।
ঘটনা জেনে রিপোর্টার ইউনিটির নেতারা ছুটে গিয়ে আর্থিক সহযোগীতা করলে খবর পেয়ে ছুটে আসেন উপজেলা নির্বাহী অফিসারসহ পুলিশ সদস্যরা। এসময় তার বাকি জীবন দেখভাল ও জমি উদ্ধারের প্রতিশ্রুতি দেন। ফাতেমা বেগম অভিযোগ করে বলেন, জমি রেস্ট্রি নেয়ার পর কয়েকবার থানায় গিয়ে সাহায্য চেয়েছি পুলিশ কোন সহযোগীতা করেনি।
পালিত ছেলে তোফাইলকে পুলিশ আটক করেছে এমন খবর পেয়ে থানায় ছুটে আসেন মা ফাতেমা বেগম। পুলিকে বলে ছেড়ে দিতে । এরপর হরিপুর থানা পুলিশ মাসহ কয়েকজন স্থানীয় ব্যক্তির উপস্থিত্বে মুচলেখা নিয়ে আজ সন্ধ্যয় ছেড়ে দেয়।
এ বিষয়ে হরিপুর থানার ওসি এসএম আওরাঙ্গ জেব জানান, পালিত পুত্র তোফাইলকে আটক করে তার কাছে মুচলেখা নেওয়া হয়েছে। বৃদ্ধা মা যতদিন বেচেঁ থাকবে তার দেখভাল করবে তারা। যদি না করে তাহলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে