চিত্রনায়িকা দীঘির বিরুদ্ধে মামলা

0
74

চিত্রনায়িকা প্রার্থনা ফারদিন দীঘি এবং তার বাবা ও মামার বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করেছেন চিত্রপরিচালক দেলোয়ার জাহান ঝন্টু।

এক কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে বুধবার ঢাকা জজ কোর্টে এ মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মামলা দায়েরের পর দেলোয়ার জাহান ঝন্টু সাংবাদিকদের বলেন, ‘দীঘি, তার বাবা ও মামার বিরুদ্ধে এক কোটি টাকা আদায়ের জন্য মানহানির মামলা করেছি। আমার সম্মান তার (দীঘি) থেকে অনেক বেশি। পৃথিবীতে সিনেমার গল্প সবচেয়ে বেশি আমি লিখেছি। এশিয়া মহাদেশে সবচেয়ে বেশি চলচ্চিত্র আমি বানিয়েছি। আমার তো ১০ কোটি টাকাও কম হয়ে যায় বলে মনে করি।’

‘পরিচালক ও প্রযোজকদের জন্য দীঘি হুমকিস্বরূপ’ মন্তব্য করে এই নির্মাতা বলেন, ‘সিনেমার নায়িকাই যখন বলেছে- সিনেমা চলবে না, তাহলে মানুষ কেন হলে যাবে? এত বড় সাহস! মুক্তির আগে চলবে না বললে তো সে (দীঘি) পরিচালক এবং প্রযোজকদের জন্য হুমকি। এটা কালচার হয়ে যাবে। অন্য নায়ক-নায়িকারাও বলবে।’

‘তুমি আছো তুমি নেই’ নামে সিনেমাটিতে জুটি বেঁধে অভিনয় করেন আসিফ ইমরোজ ও প্রার্থনা ফারদিন দীঘি। সিনেমাটি আগামী ১২ মার্চ সারা দেশে মুক্তি পাবে। মুক্তিকে সামনে রেখে প্রকাশিত হয় পোস্টার, ট্রেইলার। এ নিয়ে সমালোচনার মুখে পড়েন নির্মাতা ও দীঘি। দর্শকদের সমালোচনার সাথে তাল মেলান নায়িকা দীঘিও। তারপরই মূলত এই পরিচালকের সাথে তার দ্বন্দ্ব তৈরি হয়।

দীঘি শিশুশিল্পী হিসেবে ঢাকাই সিনেমায় অভিনয় করে দর্শকপ্রিয়তা লাভ করেন। কাজী হায়াৎ পরিচালিত ‘কাবুলীওয়ালা’ সিনেমায় অভিনয় করে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছিলেন তিনি। এরপর শিশুশিল্পী হিসেবে মোট ৩০টি সিনেমায় অভিনয় করেন তিনি। মাঝে দীর্ঘ বিরতি নিয়ে নায়িকা হিসেবে ‘টুঙ্গিপাড়ার মিয়া ভাই’ ও ‘তুমি আছো তুমি নেই’ সিনেমায় অভিনয় করেন। সিনেমা দুটি মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে। এছাড়া বঙ্গবন্ধুর বায়োপিক এবং ‘শেষ চিঠি’ নামে একটি ওয়েব ফিল্মে কাজ করছেন দীঘি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে