করোনার কবলে দেশের যে তারকারা

0
135

নভেল করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরুর পর থেকে দেশের সংস্কৃতি ও বিনোদন অঙ্গনের অনেকেই করোনার কবলে পড়েছেন। মহামারী ভাইরাসটির কারণে চলতি বছর অনেক গুণী সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বকে হারাতে হয়েছে। এখনো প্রতিনিয়ত অনেকেই আক্রান্ত হয়ে চলেছেন। সাম্প্রতিক সময়ে বেশকিছু তারকা, সংগীতশিল্পী করোনাক্রান্ত হয়েছেন। তাদের মধ্যে অনেকে সুস্থ হয়েছেন। কেউ কেউ এখনো হাসপাতালে চিকিৎসারত।

প্রখ্যাত চলচ্চিত্র অভিনেতা ও জাতীয় সংসদ সদস্য আকবর হোসেন পাঠান যিনি ‘ফারুক’ নামে দর্শকের কাছে পরিচিত। বরেণ্য এ অভিনেতা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। ১৬ নভেম্বর রাতে করোনা পজেটিভ রিপোর্ট এলে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী তাকে রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার চিকিৎসা চলছে। বর্তমানে তার শারীরিক অবস্থা ভালো বলে জানান তার স্ত্রী ফারহানা পাঠান।

দেশের ছোটপর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা আজিজুল হাকিম করোনায় আক্রান্ত হন কিছুদিন আগে। বর্তমানে তিনিও চিকিৎসাধীন। তার শারীরিক অবস্থা এখন উন্নতির দিকে। তবে সম্পূর্ণ সুস্থ হতে আরো কিছুদিন লাগবে। আজিজুল হাকিমের স্ত্রী জিনাত হাকিমের ফেসবুক পেজ থেকে বিষয়টি জানা যায়। গত মঙ্গলবার আইসিইউ থেকে কেবিনে স্থানান্তর করা হয় এ অভিনেতাকে। এর আগে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ১২ নভেম্বর দিবাগত রাত ১টা থেকে লাইফ সাপোর্টে ছিলেন তিনি।

দেশের প্রখ্যাত সুরকার, গীতিকার এবং পপ ব্যান্ড ‘রেনেসাঁ’র অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা সংগীতশিল্পী নকীব খান করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। ১৩ নভেম্বর গীতিকার শহীদ মাহমুদ জঙ্গি ফেসবুকে তার প্রোফাইলে লেখেন, ‘নকীব খান কভিড-১৯ পজিটিভ হয়েছেন। সবাই তার জন্য দোয়া করবেন।’ জানা যায়, কয়েক দিন ধরে শারীরিকভাবে দুর্বলতা অনুভব করছিলেন নকীব খান। করোনার বিশেষ কোনো লক্ষণ না থাকলেও নমুনা পরীক্ষা করান। ১২ নভেম্বর রিপোর্টে কভিড-১৯ পজিটিভ আসে। তিনি তার বাসায় আইসোলেশনে আছেন।

৪ নভেম্বর জ্বরে আক্রান্ত হন প্রখ্যাত জাদুশিল্পী জুয়েল আইচ। চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে করোনা টেস্ট এবং বুকের সিটি স্ক্যান করান। রিপোর্ট আসার পর জানা যায় তিনি করোনায় আক্রান্ত। তার ফুসফুসও সংক্রমিত হয়েছে। প্রথমে রাজধানীর একটি হাসপাতালে তাকে নেয়া হয়েছিল। পরে ১৪ নভেম্বর তাকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি করানো হয়। গত বৃহস্পতিবার তাকে আইসিইউ থেকে সাধারণ কেবিনে নেয়া হয়েছে। সেখানে চলছে তার চিকিৎসা। আগের চেয়ে কিছুটা সুস্থ হয়ে উঠলেও এখনো পুরোপুরি শঙ্কামুক্ত নন তিনি।

‘ব্ল্যাক ডায়মন্ড’খ্যাত সংগীতশিল্পী বেবী নাজনীন আমেরিকায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। বর্তমানে তিনি নিউজার্সির সিটি মেডিকেল সেন্টারে চিকিৎসাধীন। শুক্রবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টার দিকে তার করোনা আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যায়।

এদিকে ছোটপর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্ব করোনাক্রান্ত হয়েছিলেন। বর্তমানে তিনি সুস্থ। নবাব এলএলবি ছবির শুটিং করতে গিয়ে করোনাক্রান্ত হন অর্চিতা স্পর্শিয়া। নির্মাতা মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজের ‘মানি মেশিন’ নামের ওয়েব সিরিজের শুটিং করতে গিয়ে পরিচালকসহ করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন তাহসান খান ও তানজিন তিশা। অবশ্য তিনজনই সুস্থ হয়ে উঠেছেন। জুলাইয়ে মেহজাবিন চৌধুরী এবং অক্টোবরে পূর্ণিমা করোনাক্রান্ত হয়েছিলেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে